SUBJECT REVIEW : DEPARTMENT OF AGRICULTURE IN BANGLA

0
4

বাংলাদেশের বেশিরভাগ মানুষ ই কৃষক..
তাই কৃষির অনেক অনেক গুরুত্ব রয়েছে। মজার ব্যাপার হল কৃষি বিষয়ে পড়তে কখনও বোরিং হতে হবে না। বিভিন্ন কিছু নিয়ে পড়াশুনা করার অনন্য সুযোগ এই নোবিপ্রবি তেই পাওয়া সম্ভব। কথা বাড়াবো না। এখন কৃষি বিভাগের বিষয়ে তোমাদের কিছু ধারণা দিব। কৃষি বিভাগ একমাত্র বিভাগ যার আন্ডারে অনেক কিছু একসাথে পড়ানো হয়…

কি পড়ানো হয় এক
নজরে দেখে নাওঃ

  • Introduction to Agriculture
  • introduction to Farming
  • introduction to ecosystem
  • Agronomy
  • Soil Science
  • Entomology
  • Horticulture
  • Plant Pathology
  • Crop Botany
  • Genetics and Plant Breeding
  • Agricultural Extension Education
  • Agricultural Chemistry
  • Biochemistry and Molecular Biology
  • Physics
  • Chemistry
  • Languages
  • Agroforestry
  • Biotechnology
  • Fisheries
  • Environmental Science

বিজ্ঞান নির্ভর প্রতিটা বিষয়ই তোমার কাছে অনেক মজা নিয়ে পড়াশুনা করতে পারবে এবং পড়াশুনা করেও অনেক আনন্দ পাবে বলে আমার বিশ্বাস। এখন জানতে চাইতেই পারো, বিদেশে কৃষিবিদদের উচ্চশিক্ষার সুযোগ কেমন?
হ্যাঁ দেশেই উচ্চশিক্ষার অনেক সুযোগ
আছে। তবে দেশ ছাড়াও বিদেশে রয়েছে
উচ্চশিক্ষার বিশাল সুযোগ। উচ্চশিক্ষার
জন্য প্রতি বছর প্রচুর শিক্ষার্থী
যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, জাপান, জার্মান,
নেদারল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ
কোরিয়া, মালয়েশিয়া ও ভারতে
যাচ্ছে। একজন কৃষিবিদ হিসেবে
তোমরাও এ সুযোগ পেতে পারো।
পড়াশুনা শেষে চাকুরির ক্ষেত্রের
কথা ভাবছ??
আরে বাংলাদেশের মতো কৃষিপ্রধান দেশে কৃষিবিদদের সরকারি-বেসরকারি চাকরির ক্ষেত্র কি কম আছে??

বাংলাদেশ
কর্ম কমিশনের (বিসিএস) সাধারণ
ক্যাডারে চাকরি করার সুযোগ তো
আছেই। পাশাপাশি কৃষি ক্যাডারে
কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অধীনে
কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা, মৃত্তিকা সম্পদ
উন্নয়নে বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা, কৃষি
কর্মকর্তা পদ সহ বিভিন্ন সরকারি
প্রতিষ্ঠানে চাকরি করার সুবিধা
রয়েছে। এছাড়া প্রতিটি ইউনিয়নে
কৃষিবিদ নিয়োগ দেয়ার সিদ্ধান্ত
নিয়ে কৃষিবিদদের কর্মক্ষেত্র আরও
বৃদ্ধি করেছে সরকার।

কৃষি তথ্য সার্ভিস, বাংলাদেশ কৃষি
গবেষণা কাউন্সিল
সহ এরকম আরো অনেক প্রতিষ্ঠানে
রয়েছে কাজ করার সুযোগ।

ইনস্টিটিউট, ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট,
পাট গবেষণা ইনস্টিটিউট, ইক্ষু গবেষণা
ইনস্টিটিউট, চা গবেষণা কেন্দ্র, মৎস্য
গবেষণা কেন্দ্র, বন গবেষণা কেন্দ্র,
মসলা গবেষণা কেন্দ্র, বন গবেষণা
কেন্দ্র, পশুসম্পদ অধিদপ্তর , পানি উন্নয়ন
বোর্ড, রেশম উন্নয়ন বোর্ড ও চিনিকল
সংস্থায় প্রশাসনিক দায়িত্বে
কৃষিবিদদের কাজের বিরাট ক্ষেত্র
রয়েছে।

ডিএফআইডি, ড্যানিডা, সিডা, উইনরক,
ইরি, আাইএফডিসি ও অক্সফাম জিবির
মতো প্রতিষ্ঠানে ও রয়েছে
কৃষিবিদদের অগ্রাধিকার।
এছাড়া*
FAO, ব্র্যাক, স্কয়ার,
অ্যাগ্রোবেট, লালতীর, ন্যাশনাল
অ্যাগ্রোফেয়ার, প্রশিকা, আশা,
এসিআই, কৃষিবিদ গ্রুপ, অ্যাকশন এইডের
মতো
বাংলাদেশি এসব প্রতিষ্ঠানেও
শুধুমাত্র কৃষিবিদদের জন্য রয়েছে উচ্চ
বেতনে চাকরি করার অনন্য সুযোগ।
বিশেষ করে বেসরকারি বীজ
কোম্পানিগুলোতে রয়েছে
কৃষিবিদদের যথেষ্ট চাহিদা।

ইনসেক্টিসাইড কোম্পানিগুলোতেও
রয়েছে কৃষিবিদদের দারুণ কাজের
ক্ষেত্র ।
পরিসরে গড়ে তুলতে পারো
কৃষিভিত্তিক প্রতিষ্ঠানও।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here